মাসিক চলাকালে স্বামী ধৈর্যধারণ করতে পারে না, আমি এখন কি করব ?

0

মাসিক চলাকালে স্বামী ধৈর্যধারণ করতে পারে না, আমি এখন কি করব ?
আমার মাসিক চলা কালে স্বামী ধৈর্যধারণ করতে পারে না। তার সেক্স অত্যাধিক বেশী। আমার মাসিক চলাকালে সে বিকল্প পন্থায় কিভাবে তার সেক্স চাহিদা নিবারণ করতে পারে পরামর্শ দিলে উপকৃত হবো।

উত্তরঃ মাসিক চলা কালে ইসলামে সঙ্গম করা হারাম বিধায় আপনি বিকল্প পদ্ধতিতে আপনার স্বামীর যৌন চাহিদা নিবারণ করাতে চেয়েছেন।আপনি আপনার স্বামী যৌন চাহিদাকে গুরুত্ব দেন এবং তাকে অনেক ভালোবাসেন এই কথার দ্বারাই বুঝা যায়। আপনি চান না আপনার সাময়িক স্বাস্থ্য সমস্যার জন্য তার কোন কষ্ট হউক।স্ত্রীর মাসিক চলাকালীন বিকল্প পন্থায় সেক্স করার পদ্ধতিঃ-
প্রথম পদ্ধতিঃ স্ত্রী তার স্বামীকে লিঙ্গকে হ্যান্ডজবের মাধ্যমে বীর্যপাত করিয়ে স্বামীকে যৌন আনন্দ দিতে পারেন। এই কাজ করার পূর্বে আগের মতোই স্বামী স্ত্রী একে অপরকে আলিঙ্গণ, চুম্বনের মাধ্যমে নিজেদের মাঝে যৌন উত্তেজনা জাগিয়ে নিবে।

দ্বিতীয় পদ্ধতিঃ উত্তেজিত লিঙ্গ স্ত্রীর উরুতে ঘর্ষণের মাধ্যমে বীর্যপাত ঘটিয়ে স্বামী যৌন আনন্দ উপভোগ করতে পারে।

চার কুসুমের ডিম! ভাবার দরকার নেই, প্রতিবেদনটি পড়ুন

ডিমে সাধারণত একটি কুসুম থাকে। মাঝে মধ্যে জোড়া কুসুমও দেখা যায়। সেই অবধি ঠিক আছে, তাই বলে চার কুসুমের ডিম! ভাবার দরকার নেই, ইংল্যান্ডে গত সপ্তাহে এক আশ্চর্য ডিম পাওয়া গিয়েছে। সাধারণ ডিমের চেয়ে প্রায় তিনগুণ বড় এবং প্রায় চার আউন্স ওজনের ওই ডিমে ছিল চারটি কুসুম। অবশ্য ২০১০ সালে এ ধরনের একটি ডিমের খবর পাওয়া গিয়েছিল নিউক্যাসেলে।

বিশেষজ্ঞদের মতে, মুরগির একটি ডিমে দুটি কুসুম পাওয়ার ঘটনা খুব কম ঘটে। ০.১ শতাংশ ক্ষেত্রে এমনটি হতে দেখা যায়। প্রতি ১১০০ কোটি ডিমের মধ্যে একটিতে হয়তো চারটি কুসুম থাকতে পারে। চারটি কুসুম পাওয়ার প্রতিটি ঘটনাই ইংল্যান্ডের। তবে এবার চার কুসুমের একটি ডিম পাওয়া গিয়েছে চিনে। সানকি প্রদেশের জিয়ান শহরে বসবাসকারী ইয়ান নামে এক মহিলা ডিমটা খুঁজে পেয়েছেন। চিনের সংবাদসংস্থা পিপল ডট সিএনে প্রকাশিত এক প্রতিবেদনে জানানো হয়েছে, ইয়ান তার পরিবারের জন্য রাতের খাবার তৈরির সময় ডিম ভেঙ্গে সেখানে চারটি কুসুম দেখে অবাক হন। বিশেষজ্ঞরা জানান, একটি ডিমে চারটি কুসুম পাওয়ার ঘটনা খুব কম ঘটে। তবে একটি ডিমে সর্বোচ্চ নয়টি কুসুম পাওয়ার ঘটনাও ঘটেছে।

ওই প্রতিবেদন সূত্রে খবর, সাধারণ ডিমের সঙ্গে এর তেমন কোনও পার্থক্য ছিল না। এর ওজন ও আকার ছিল স্বাভাবিক ডিমের মতোই। ভাঙ্গার আগে দেখে বোঝার উপায় ছিল না যে এর মধ্যে একাধিক কুসুম থাকতে পারে।
চার কুসুমের ডিম! ভাবার দরকার নেই, প্রতিবেদনটি পড়ুন

Share.