আবাসিক হোটেল থেকে ১১ পতিতাকে হাতে নাতে আটক করলো র‌্যাব ! (ভিডিও)

0

আবাসিক হোটেলে অসামাজিক, অনৈতিক কাজ ও দেহব্যবসার অভিযোগে ফরিদপুর শহরের বিভিন্ন আবাসিক হোটেলে অভিযান চালায় আইন শৃঙ্খলা বাহিনী। অসামাজিক কাজে লিপ্ত হাতে নাতে ১১ তরুনীকে আটক করা হয়।

‘চেম্বারে ওষুধ খাইয়ে আমাকে একাধিক বার ধর্ষণ করা হয়’

চিকিৎসার নাম করে গৃহবধূকে অচেতন করে ধর্ষণের অভিযোগ উঠল এক হোমিওপ্যাথি চিকিৎসকের বিরুদ্ধে ৷ পশ্চিম মেদিনীপুরের বেলদা থানাতে এই অভিযোগ লিখিত ভাবে জমা পড়তেই পুলিশ অভিযুক্ত চিকিৎসককে গ্রেফতার করেছে ৷

মেডিক্যাল পরীক্ষার ব্যবস্থা হয়েছে মহিলার। ধৃত চিকিৎসকের নাম মৃগাঙ্ক মাইতি ৷ তিনি একাধারে শিশু, স্ত্রী, চর্ম ও যৌন রোগের কনসালট্যান্ট। খবর এবেলার।

জানা গিয়েছে, বেলদা থানার বাখরাবাদ এলাকার বাসিন্দা এক মহিলা ৭ মাস আগে শারীরিক অসুস্থতার কারণে ওই চিকিৎসকের কাছে যান। সূত্রের খবর, মহিলার স্বামী ও মৃগাঙ্ক একে অপরের বন্ধু।

বৃহস্পতিবার ওই চিকিৎসকের বিরুদ্ধে অভিযোগ জমা পড়ে ৷ তিনি অভিযোগ করেন, ‘‘গত সাতমাস আগে মৃগাঙ্কবাবুর চেম্বারে গেলে ওষুধ খাইয়ে আমাকে ধর্ষণ করা হয় ৷

পরে সেই ছবি তুলে ব্ল্যাকমেল করে একাধিক বার আমাকে ধর্ষণ করা হয় ৷ সম্প্রতি সেই অত্যাচার বাড়তেই আমি স্বামীকে পুরো বিষয়টি জানাই৷”

স্ত্রীর কাছ থেকে বিষয়টি জানার পরই থানায় অভিযোগ করেন তাঁর স্বামী। অভিযোগের প্রেক্ষিতে মৃগাঙ্ক মাইতিকে গ্রেপ্তার করেছে বেলদা থানার পুলিশ।

অন্যদিকে অভিযোগকারী মহিলাকে ডাক্তারি পরীক্ষার জন্য মেদিনীপুর মেডিক্যাল কলেজে পাঠানো হয়েছে।

সূত্রঃ বিডি২৪লাইভ

Share.